Home / প্রযুক্তি / মোবাইল / মোবাইলের মাধ্যমে টাকা আত্নসাৎকারী প্রতারক চক্র হতে সাবধান

মোবাইলের মাধ্যমে টাকা আত্নসাৎকারী প্রতারক চক্র হতে সাবধান

মানুষকে প্রতারণা করার কলা-কৌশল বিশ্বের মতো বাংলাদেশও দিন দিন বাড়ছে। মোবাইল ফোনের মাধ্যমে গুছিয়ে, কৌশলে কয়েকটি কথা বলে সাধারণ মানুষের কাছ থেকে প্রতারকরা হাতিয়ে নিচ্ছে হাজার-হাজার টাকা। বাংলাদেশে মোবাইল প্রতারণার কয়েকটি ঘটনার কথা বলা যাক। যেমন-

(১) গভীর রাতে কোনো সাধু বাবা গম্ভীর কন্ঠে ওয়াজ-নসিহত করবে কিংবা মানতের কথা বলবে। ধর্মীয় ভয়-ভীতি দেখাবে। কোনো মাজারের নামে কিছু টাকা বিকাশ কিংবা ফ্লেক্সিলোড করতে বলবে এবং না করলে বড় ক্ষতি হবার কথা বলবে। কোনো সাধু বাবার কি আপনার মোবাইলে কল করে তা বলার কথা? মনে রাখবেন, এরা প্রতারক।

(২) আবার কোনো মোবাইল কোম্পানির উর্দ্ধতন কর্মকর্তার পরিচয় দিয়ে বলবে, আপনি আমাদের লটারীতে বিজয়ী হয়েছেন। আপনি বিজয়ী অর্থ বাবদ ৫ লক্ষ টাকা পাবেন। লটারীর অর্থ প্রসেস করার জন্য ৫ হাজার টাকা পাঠাতে বলবে। মনে রাখবেন, মোবাইল কোম্পানিগুলো কোনো লটারী করে না। তাই এইসব কথায় ভুলবেন না। তবে আপনি যদি, কোনো কোম্পানির কুইজ  প্রতিযোগিতায় অংশ নিয়ে থাকেন এবং তাতে আপনি বিজয়ী হন তাহলে কল আসতে পারে কিন্তু আপনাকে টাকা পাঠাতে বলবে না।

(৩) কিংবা কোনো মোবাইল কোম্পানির উর্দ্ধতন কর্মকর্তার পরিচয় দিয়ে আপনাকে বলতে পারে, ‘মোবাইল নেটওয়ার্ক আপগ্রেডের কাজ চলছে। তাই আপনার মোবাইলটি এক ঘন্টার জন্য বন্ধ রাখতে অনুরোধ করা হলো। মোবাইল ফোন বন্ধ না রাখলে আপনার  মোবাইল নষ্ট কিংবা বিস্ফোরণ হতে পারে।’ আপনি যদি ঐ এক ঘন্টা মোবাইল ফোন বন্ধ রাখেন তাহলে ঐ প্রতারক চক্র আপনার পরিবারে খবর দিবে যে, আপনি সড়ক দুর্ঘটনায় গুরুতর আহত হয়েছেন এবং আপনি এখন হাসপাতালে ভর্তি। আপনার ছেলের/স্বামীর জন্য জরুরী রক্ত ও ঔষধ লাগবে। আপনি দ্রুত বিকাশে ২০/৩০ হাজার টাকা পাঠান এবং আপনি অমুক হাসপাতালে তাড়াতাড়ি আসেন। এরপর পরিবারের সদ্যস্যরা নিশ্চয়ই আপনার মোবাইলে আগে কল দিবে। কল করলে আপনার মোবাইল বন্ধ পাবে ফলে আপনার পরিবারের সদস্য তাদের কথায় বিশ্বাস করবে এবং বিষয়টি সত্য ভেবে দেরি না করে দ্রুত টাকা পাঠাবে।

এই ধরণের প্রতারণা চক্র কোনো পরিবারের যাবতীয় তথ্য দীর্ঘ দিন ধরে সংগ্রহ করে এই কাজটি করে থাকে এবং একটি বিশেষ সফটওয়্যার দিয়ে তারা উভয়ের ফোনকে ‘ব্যাস্ত’ (Busy) রাখে কিংবা ‘সংযোগ দেওয়া সম্ভব হচ্ছে না’ (Unreachable) করে রাখে। ফলে ঐ দুই নম্বর একে অপরকে কল করলে বিজি কিংবা আনরিচেবল দেখাবে। এই অবস্থাটি প্রায় ১ ঘন্টা  মতো থাকে। এমতাবস্তায় সত্যতা যাচাইয়ের জন্য অন্য কারো  নম্বর থেকে কল করলে বিষয়টি বুঝা যাবে। অর্থাৎ যদি অন্য কোনো নম্বর থেকে কল করলে কল যায় কিন্তু ঐ দুই নম্বর থেকে কল করলে এক অপরের কাছে কল যায় না। তাহলে বুঝবেন বিষয়টি প্রতারক চক্রের কাজ।

এই অবস্থা হতে বাঁচতে হলে প্রথমত আপনি কারো কথায় মোবাইল ফোন বন্ধ করবেন না এবং দ্বিতীয়ত পরিস্থিতির শিকার হলে অন্য কারো নম্বর থেকে দ্রুত কল করুন এবং পরিবারের সদস্যদের নিশ্চিত করুন যে আপনি ঠিক আছেন। মনে রাখবেন, মোবাইল কোম্পানিগুলো নেটওয়ার্ক আপগ্রেড বা অন্য যা কিছু করুক না কেন তাতে আপনার মোবাইল বন্ধ করে রাখতে বলবে না।

তবে আপনি হয়তো সত্যিই কোথাও কোনো দুর্ঘটনায় পড়তে পারেন এবং কোনো সাধারন মানুষ আপনার পরিবারে ফোন করে দুর্ঘটনা স্থলে বা হাসপাতাল কিংবা ক্লিনিকে আসতে বলবে। কিন্তু কোনো টাকা পাঠাতে বলবে না। তাই এ বিষয়টিও মনে রাখতে হবে। তবে সেখানে একা যাবেন না। পরিবারের কয়েকজন সদ্যস্য মিলে যাবেন।

(৪) অপরিচিত নম্বর থেকে কল করে আপনাকে বলতে পারে, ভুল করে আপনার নম্বরে ৪/৫ হাজার টাকা চলে গেছে। দয়া করে টাকাটা ফিরিয়ে দিন। আপনাকে কোনো মোবাইল ব্যাংক এর নাম ব্যবহার করে এবং টাকার পরিমান দিয়ে ম্যাসেজও পাঠাতে পারে। আপনার মোবাইলে ব্যালেন্স চেক করতে বলতে পারে। আপনি ভুলেও তা তাৎক্ষনিক চেক করবেন না। আপনার যদি কোনো মোবাইল ব্যাংকের এ্যাকাউন্ট না থাকে তাহলে প্রথমে তাকে না করুন। কিন্ত আপনার কোনো মোবাইল ব্যাংকিং এ্র্যাকাউন্ট থাকে তাহলে আপনি তাৎক্ষনিক কিংবা কিছু পরে কোনো ব্যালেন্স বা ম্যাসেজ চেক করে তাকে জানাবেন না। তাকে তাৎক্ষনিত জানাতে পারেন যে, আপনার নাম, ঠিকানা এবং আপনার মোবাইল নম্বর বলুন আমি লিখে রাখি।  মোবাইল ব্যাংকের সাথে কথা বলে বিষয়টি নিয়ে নিশ্চিত হই। প্রতারক আপনাকে তথ্য না দিয়ে নানা যুক্তি উপস্থাপন করতে পারে এবং উত্তেজিত হতে পারে। এমতাবস্থায় আপনি তার কলটি বন্ধ করতে পারেন। আশা করা যায় ঐ প্রতারকের ২য় বার কল করার কথা নয়।

কোনো মোবাইল ব্যাংকিং এর মাধ্যমে টাকা পাওয়ার ম্যাসেজ আসলে ঐ ব্যাংকের নাম ঠিকভাবে লিখা আছে কিনা তা দেখে নিবেন। প্রতারকরা ম্যাসেজের নিচে কোনো ব্যাংকের নাম লিখতে পারে। কিন্তু সেন্ডারের ঘরে (ম্যাসেজের উপরে থাকে প্রাপকের ঘরে) কোনো ব্যাংকের নাম লিখতে পারে না। তাই এই বিষয়টি মনে রাখা প্রয়োজন। কিন্তু ভুল বশত সত্যিই কোনো টাকা আসে এবং কেউ যদি ফোন করে তবে কি করবেন? ঐ একই কাজ করুন।

অপরিচিত কোনো নম্বর থেকে কল আসলে অতি উৎসাহি না হয়ে চিন্তাশক্তি ও বুদ্ধির প্রয়োগ করুন। মোবাইল প্রতারক চক্র হতে সাবধান হোন এবং অন্যদের সাবধান করুন। প্রয়োজনে এদের সম্পর্কে মোবাইল ফোন কোম্পানিকে প্রতারকের নম্বরটি দিয়ে বিষয়টি অবগত করুন এবং আইন-শৃঙ্খলা রক্ষা বাহিনীকে খবর দিন।

About admin

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

*